প্রচ্ছদ > জাতীয় > সংগীতশিল্পী মিলার বিচার শুরু

সংগীতশিল্পী মিলার বিচার শুরু

জাতীয়

সময়ের ডাক
সংগীতশিল্পী তাশবিহা বিনতে শহীদ মিলার (৩৩) বিরুদ্ধে সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারিকে এসিড নিক্ষেপের অভিযোগের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় চার্জগঠন করেছেন আদালত। চার্জগঠনের মধ্যে দিয়ে মামলাটির আনুষ্ঠানিকভাবে বিচার শুরু হলো।

রোববার (১৪ নভেম্বর) ঢাকার এসিড দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ এইচ এম হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া এই আদেশ দেন। পারভেজ সানজারির পক্ষের আইনজীবী ইশরাত হাসান ও আল-আমিন খান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এদিন চার্জগঠনের সময় মিলা নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১২ মে সংগীতশিল্পী তাশবিহা বিনতে শহীদ মিলা (৩৩) ও এসএম স্বামী পারভেজ সানজারির বিবাহ হয়। পরের বছর ৩১ জানুয়ারি আসামি ও ভিকটিমের মধ্যে সাংসারিক বনিবনা না হওয়ায় তালাক দেন। এরপর থেকে পারভেজ সানজারীর বিরুদ্ধে মিথ্যা, কুৎসা রটনা করে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টাসহ বিভিন্ন সময় প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

এজাহারে আরও বলা হয়, ২০১৯ সালের ২ জুন সন্ধ্যা সাতটা ৫০ মিনিটের দিকে পারভেজ সানজারি বাসা থেকে মোটরসাইকেল যোগে বের হলে রাস্তার মধ্যে পিস জন পিটার হালদার ওরফে কিম (২৮) তার পথরোধ করে। পারভেজ সানজারি পথ রোধের কারণ জানতে চাইলে তখন পিটার সাহায্য প্রার্থনা করে। এ সময় ভিকটিম মিলাকে রাস্তার পাশে আড়ালে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে। বিষয়টি ভিকটিম বুঝতে পেরে স্থান ত্যাগ করার চেষ্টা করলে দুই নং আসামি তার কাঁধে থাকা ব্যাগ হতে একটি বোতল বের করে তরল দাহ্য পদার্থ ছুড়ে মারে। তখন তার শরীরের বিভিন্ন অংশসহ দুই হাতের কবজির ওপর থেকে দুই পা, পেট ও পুরুষাঙ্গের অংশ বিশেষ পুড়ে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হয়।

ওই ঘটনায় পারভেজ সানজারির বাবা এসএম নাসির উদ্দিন উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করেন। ২০২০ সালের ২৩ ডিসেম্বর সহকারী পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মিলা ও পিটারকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।