প্রচ্ছদ > সারাদেশ > বউ রেখে প্রতিবেশীর স্ত্রী নিয়ে পালাল ছেলে, মায়ের ইচ্ছামৃত্যু

বউ রেখে প্রতিবেশীর স্ত্রী নিয়ে পালাল ছেলে, মায়ের ইচ্ছামৃত্যু

সারাদেশ

সময়ের ডাক
বছরখানেক আগে ভাইয়ের মেয়ের সঙ্গে ছেলের বিয়ে দিয়েছিলেন মা। কিন্তু ছেলে সেই বউ রেখে সপ্তাহখানেক আগে পালিয়েছেন অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে। এতে যেমন মানসিক কষ্ট পেয়েছেন মা তেমনি প্রতিবেশীদের কথায় পেয়েছেন লজ্জাও। আর এই অভিমানে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেন তিনি।

ঘটনাটি ঘটে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের বিন্নাবাড়ি গ্রামে। শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে ওই মায়ের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাড়াশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফজলে আশিক। আত্মহত্যা করা নারীর নাম ফিরোজা খাতুন (৪৫)। তিনি নিজের স্ত্রী রেখে অন্যের স্ত্রী নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ছেলে ফিরোজ আহমেদের (২৫) মা।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, নিজের স্ত্রী রেখে অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে ছেলে পালিয়ে যাওয়ার পর থেকেই মা ফিরোজা খাতুনকে বিভিন্ন সময় লোকজন নানা কটূক্তি করে আসছিল। অপমান আর হতাশার একপর্যায়ে তিনি বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কীটনাশক পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

সগুনা ইউপির সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম জানান, বিন্নাবাড়ি গ্রামের মোমিনুর রহমানের স্ত্রী ফিরোজা খাতুন বছরখানেক আগে একই গ্রামে তার আপন ভাইয়ের মেয়ের সঙ্গে ছেলে ফিরোজ আহমেদকে বিয়ে দেন। কিন্তু তার ছেলে প্রেমের টানে এক সপ্তাহ আগে এক প্রতিবেশীর স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যান। সেই ঘটনার জেড়েই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেন।

তাড়াশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফজলে আশিক জানান, সকালে গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।