দিলদার হোসেন সেলিমের কবর জিয়ারত ও দোয়া করলো জেলা বিএনপি

 

সময়ের ডাক: বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি মরহুম দিলদার হোসেন সেলিমের কবর জিয়ারত ও মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করেছেন সিলেট জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা বিএনপির একটি দল গোয়াইনঘাটস্থ মরহুম দিলদার হোসেন সেলিমের গ্রামের বাড়ীতে যান। সেখানে গিয়ে মরহুমের কবর জিয়ারত করে তার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মরহুমের বাড়ীতে যাওয়ার পর দলীয় নেতাকর্মী, মরহুমের আত্মী স্বজন ও স্থানীয় এলাকাবাসীর অংশ গ্রহণে সংক্ষিপ্ত পরিসরে এক স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার, জেলা আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আশিক উদ্দিন চৌধুরী, আব্দুল মান্নান, ফখরুল ইসলাম ফারুক, এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দীকি, আব্দুল আহাদ খান জামাল ও মাহবুবুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ওসমান গনি, জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি লুৎফুল হক খোকন, জেলার সাবেক সহ-কোষাধ্যক্ষ এডভোকেট আহমদ রেজা, গোয়ানইঘাট উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শাহ আলম স্বপন, আব্দুল মতিন, রফিকুল ইসলাম শাহপরান, হাজী ফখরুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, শাহেদ আহম, উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ছয়ফুল আলম, বিএনপি নেতা মাসুদ রানা, সাঈদুর রহমান, ডা: নুর আহমদ, উপজেলা যুবদল নেতা জিএম শফিক, জাহাঙ্গীর আলম, মিজানুর রহমান দেলোয়ার, নুরুল শিকদার, উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক শাহেদ আহমদ, সদস্য সচিব মুমিনুল হক, যুগ্ম আহ্বায়ক ইউসুফ আহমদ ও গোয়াইনঘাট সরকারী কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক রাসেল আহমদ প্রমূখ।

সিলেট জেলা তথা বিভাগ বিএনপির অন্যতম অভিভাবক দিলদার হোসেন সেলিমের কবর জিয়ারত ও মোনাজাত শেষে দলীয় নেতাকর্মী, আত্মীয় স্বজন ও স্থানীয় এলাকাবাসী আয়োজিত সংক্ষিপ্ত স্মরণসভায় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার বলেন, আপনাদের আসনের এমপি হলেও মরহুম দিলদার হোসেন ছিলেন জেলা তথা গোটা সিলেট বিভাগ বিএনপির অন্যতম অভিভাবক। বৃহত্তর সিলেটে জাতীয়তাবাদী শক্তির উত্থানে দিলদার হোসেন সেলিমের সীমাহিন ভুমিকা ভুলে থাকার নয়। দেশ ও জাতির কঠিন সময়ে মরহুম দিলদার হোসেন সেলিমের চলে যাওয়ায় আপনাদের ন্যায় জেলা বিএনপি খুব ব্যাতিত। কারণ তার মৃত্যুতে জেলা বিএনপির যে ক্ষতি হয়েছে তা কোনদিন পূরণ হবার নয়। শোককে শক্তিতে পরিনত করে দিলদার সেলিমের রেখে যাওয়া কাজ বাস্তবায়নের শপথ নিতে হবে।