সিলেট সদরের রায়েরগাঁও গ্রামের কৃষি জমি রক্ষায় স্মারকলিপি প্রদান

সময়ের ডাক : সিলেট সদর উপজেলার ১নং জালালাবাদ ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রায়েরগাঁওয়ে কৃষি বোরো ফসল ও গোচরণ ভূমি রক্ষার দাবিতে রায়েরগাঁও গ্রামের বাসিন্দারা মঙ্গলবার সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আসলাম উদ্দিন এর কাছে স্মারকলিপি পেশ করেছেন।

স্মারকলিপি পেশকালে রায়েরগাঁও গ্রামবাসীর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন- শাহ খুররম ডিগ্রি কলেজের প্রফেসার আমিনুল ইসলাম, মোঃ ফখর উদ্দিন, নুরুল হক, মনির মিয়া, বাদাই মিয়া, জালাল আহমদ, সমছুল হক, জৈন উদ্দিন, আশিক আলী ও বাতির আহমদ (দিলা) প্রমুখ।

স্মারকলিপি সূত্রে জানা যায়, সিলেট জেলার সদর উপজেলার ইসলামপুর মৌজার জে.এল নং ২ এর ১নং খতিয়ানের বিভিন্ন দাগের ভূমিতে রায়েরগাঁও গ্রামের দরিদ্র কৃষকগণ বোরো ধান চাষ এবং পতিত জমিতে বিগত ১০০ বছর ধরে গবাদি পশু চড়াইয়া আসছে। এই গ্রামের বেশিরভাগ মানুষ কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। গ্রামের জনগণ অত্যন্ত গরীব, নিরীহ ও শান্তিপ্রিয় লোক।

সম্প্রতি সিলেট জেলার জালালাবাদ থানার কাজিরগাঁও গ্রামের মৃত মরতুজ আলীর ছেলে ভূমিখেকো মোঃ শানুর মিয়া উক্ত ভূমি দখলের পাঁয়তারা করছে। এর ধারাবাহিকতায় গত ১০ মার্চ বুধবার সকাল ১০টার দিকে বর্ণিত ভূমিতে ভূমিখেকো শানুর মিয়া মাটিকাটার গাড়ী নিয়ে মাটি টাকা শুরু করলে রায়েরগাঁও গ্রামবাসী বাঁধ দেয়। কিন্তু ভূমিখেকো শানুর মিয়া অত্যন্ত প্রভাবশালী হওয়ায় পুলিশ দ্বারা গ্রামবাসীকে সরিয়ে দিয়ে সেখানে মাঠি খনন করেন। এতে কয়েকশ একর কৃষি বোরো ফসলাদিসহ নষ্ট হয়েছে। ফসলী জমি নষ্ট করার কারণ জিজ্ঞাসা করলে তিনি গ্রামবাসীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে ঢুকাইয়া রাখার হুমকি প্রদান করেন।
বর্ণিত ভূমিতে গ্রামে অনেক গরীব কৃষক কৃষি ঋণ নিয়ে ধান চাষ করেছে। কৃষকগণ বর্তমানে নিরুপায় হয়ে কান্নাকাটি করছে। রায়েরগাঁও গ্রামের একমাত্র গোচরণ ভূমি ছাড়া আর অন্য কোন গবাদি পশু লালন পালন করার আর কোন জায়গা নেই।

এ অবস্থায় গ্রামবাসী ভূমিখেকোর কবর হতে দরিদ্র কৃষকদের বোরো ফসল রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।