জগন্নাথপুরে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া আসামী লাপাত্তা

সময়ের ডাক : সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে ডাকাতি মামলার আসামি শহিদকে ছিনিয়ে নিয়েছে তার আত্মীয় স্বজনরা। এসময় পুলিশের উপরও হামলা চালানো হয়। ঘটনার ২দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ এখনও পর্যন্ত পলতাক শহিদকে গ্রেফতার ও হামলাকারীদের ধরতে পারেনি। হামলায় ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। তাদেরকে সিলেট ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার রাতে এ ঘটনাটি ঘটলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত শহিদকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে সোমবার রাতে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের পরিচয় জানাতে পুলিশ অপারগতা প্রকাশ করে।

জানা যায় , জগন্নাথপুর থানার এসআই শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে তিন পুলিশ সদস্য রবিবার রাতে উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের ঐয়ারকোণা গ্রামের মৃত মিছকন্দর আলীর ছেলে ডাকাতি মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি আব্দুস শহিদকে (৪২) অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে। তাকে থানায় নিয়ে আসার পথে স্থানীয় শান্তিগঞ্জ বাজারে আসামির স্বজনরা সংঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে হাতকড়া পরিহিত আসামি আব্দুস শহিদকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এসময় জগন্নাথপুর থানার সাবইন্সপেক্টর শহিদুল ইসলাম, এএসআই শফিকুল ও কনস্টেবল নিয়ামুল ইসলাম।

জগন্নাথপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই রাজিব আহমদ জানান, ডাকাতি মামলাসহ একাধিক মামলার আসামি আব্দুস শহিদকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসার সময় পুলিশের ওপর অর্তকিতভাবে হামলা চালিয়ে পুলিশকে মারধর করে আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে আসামির আত্মীয়স্বজনরা। এঘটনায় আমাদের চার পুলিশ সদস্য আহত হন। পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করা যায়নি । তবে এঘটনায় ৪জনকে সোমবার আটক করা হয়।

জগন্নাথপুর থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, পালিয়ে যাওয়া আসামিসহ হামলকারীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।