প্রেমিকার ঘরে হাতেনাতে ধরা খেলেন প্রেমিক

সময়ের ডাক : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় রাউৎগাঁও ইউনিয়নে পরকীয়া প্রেমিকার ঘরে শনিবার (৬ মার্চ) রাতে হাতেনাতে ধরা খেয়েছেন প্রেমিক। পরে স্থানীয়রা প্রেমিক রাইন উদ্দিনকে (২৬) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তবে এ ঘটনায় পরকীয়া প্রেমিকা বাদি কুলাউড়া থানায় মামলা করেছেন। সেই মামলার ভিত্তিতে রবিবার (৭ মার্চ) যুবক রাইন উদ্দিনকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের মধ্য কৌলাগ্রামের সফর উদ্দিনের ছেলে রাইন উদ্দিনের সঙ্গে একই এলাকার ১৮ বছরের এক কিশোরীর চার বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। এর মধ্যে ওই কিশোরীর অন্যত্র বিয়ে হয়। বিয়ের পরও উভয়ের পরকীয়া চলতে থাকে। ফলে ওই কিশোরীর সংসার টেকেনি বেশি দিন। প্রেমিক রাইন উদ্দিনের কথামতো স্বামীকে তালাক দিয়ে ওই কিশোরী ফিরে আসেন বাবার বাড়িতে। এর পর দুজনের প্রেমের সম্পর্ক আরও গভীর হয়। বিষয়টি এলাকার মানুষের জানাজানি হয়।

শনিবার রাতে প্রেমিকার বাড়িতে যান প্রেমিক রাইন উদ্দিন। একপর্যায়ে প্রেমিক রাইন উদ্দিন প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় স্থানীয় লোকজন হাতেনাতে রাইন উদ্দিনকে আটক করে কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেন।

খবর পেয়ে কুলাউড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে প্রেমিকাসহ ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত রাইন উদ্দিনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে প্রেমিকা তার ‘ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণের’ অভিযোগে কুলাউড়া থানায় মামলা করেন।

কুলাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত রাইন উদ্দিনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। ওই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।