প্রচ্ছদ > সিলেট প্রতিক্ষণ > উন্নয়ন কার্যক্রমে অবশ্যই পরিবেশ ও প্রকৃতির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে’

উন্নয়ন কার্যক্রমে অবশ্যই পরিবেশ ও প্রকৃতির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে’

সিলেট প্রতিক্ষণ সিলেট শীর্ষ

সময়ের ডাক : নদী প্রকৃতির এক অনন্য দান। সৃষ্টির সেই আদি থেকেই সে মানব জাতির পরম বন্ধু হিসেবে কাজ করছে। সহজাতভাবেই সে নদীর রয়েছে নিজস্ব ভাষা। বাঁধা-বিপত্তিহীন পথচলার মধ্যেই নদী আপন ভাষায় কথা বলতে পারে।  মানুষের সর্বনাশা হাতে নদীর সে ভাষা, চলার ছন্দ আজ হুমকির মুখে। নদীকে নিজের মতো চলতে দিতে পারলেই নদী আপন ভাষায় কথা বলার সুযোগ পায়। তাই কোনভাবেই নদীর প্রাকৃতিক ভাষা ও পথচলাকে বাঁধাগ্রস্থ করা উচিত নয়। নদীকে ব্যথা দিয়ে কোনভাবেই মানবজাতির টেকসই উন্নতি সম্ভব নয়।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে ’নদীর ভাষা, নদীর ব্যথা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় ট্রান্সপারেন্সী ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবি’র উপদেষ্টা ডাঃ মো: নুর উদ্দিন এ কথা বলেন।

রবিবার জৈন্তাপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সারি নদী বাঁচাও আন্দোলনের উদ্যোগে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপাধ্যক্ষ শাহেদ আহমেদের সভাপতিত্বে ও আব্দুল হাই আল-হাদীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায়  প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- ট্রান্সপারেন্সী ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবি’র উপদেষ্টা ডা. মো. নুর উদ্দিন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. বশির উদ্দিন, নটরডেম কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক মনোজ কুমার সেন, চারিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী তোফায়েল, নিজপাট ইউপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. ইয়াহিয়া।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, সদস্য আবুল হোসেন, ইউপি সদস্য হুমায়ুন কবীর খান, জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরওয়ার বেলাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, নুরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক শাহাজাহান কবীর খান, শিক্ষক ফয়জুল হক, প্রকৌশলী হেলাল আহমদ, ছড়াকার সাইদুল মুরছালিন, যুবলীগ নেতা সুমন আহমদ, সাংবাদিক নাজমুল ইসলাম, সোহেল আহমদ, মো. আব্দুল্লা, ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুর রহমান সবুজ, মামুন আহমদ প্রমুখ।

ডা. নুর উদ্দিন আরও বলেন, উন্নয়ন কার্যক্রমে অবশ্যই পরিবেশ ও প্রকৃতির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। বিশেষ করে, নদীর ব্যাপারে বেশি মনোযোগ দেওয়া প্রয়োজন। উন্নয়নের নামে নদী-খাল-বিল-হাওর-বাওর-টিলা-পাহাড় ধ্বংস করতে দেওয়া হবেনা। পরিবেশ ধ্বংস করে পরিচালিত কার্যক্রম সত্যিকার উন্নয়ন নয়। আগামী প্রজন্মের স্বার্থেই পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে সোচ্চার হতে হবে।

সভায় বক্তারা প্রত্যেকের নিজ নিজ জায়গা থেকে প্রাণ, পরিবেশ ও প্রকৃতি রক্ষায় আন্তরিকভাবে কাজ করার অঙ্গিকার করেন। সিলেট-তামাবিল সড়ক উন্নয়ন কাজে মাটির চাহিদা পুরণের জন্য ভরাট হয়ে যাওয়া বিল ও জলাভূমিকে কাজে লাগানোর সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানানো হয়।