শিক্ষার মানোন্নয়নে ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন করছে সরকার: পরিকল্পনামন্ত্রী

সময়ের ডাক প্রতিনিধি :: পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার শিক্ষার মানোন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন বহুতল ভবন, শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করেছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এসেছে। এই সরকার দেশের সকল স্কুল কলেজের পাশাপাশি আলিয়া মাদ্রাসাগুলোতেও একাডেমিক ভবন নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপণ করেছে। পাশাপাশি উন্নত দেশ গঠনে শিক্ষা খাতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।

তিনি বলেন, একটি জাতিকে সুস্থভাবে গড়তে শিশুদের শিক্ষার ভিত্তি মজবুত করতে হবে। সেই লক্ষ্যে সরকার বিনামূল্যে বই বিতরণ, শিক্ষাবৃত্তি, অবকাঠামো নির্মাণ, স্কুল জাতীয়করণ ও এমপিওভুক্তি সহ অনেক যুগান্তকারী পদক্ষেপ রেখেছে।

তিনিও আরও বলেন, দেশে এখন কোন কিছুর অভাব নেই। জনগনের প্রয়োজনে সব করা হচ্ছে৷ দেশ এখন উন্নয়নের আলোয় আলোকিত। আর এসব উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ সম্ভব হয়েছে বর্তমান সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার জন্যই। এসময় একাডেমিক ভবন নির্মাণে নিযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে দ্রুত সময়ের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করার তাগাদা দেন তিনি।

সোমবার(১ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১১ টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জামেয়া হাজী আক্রম আলী দাখিল মাদ্রাসার ৪তলা ভিত বিশিষ্ট ৪ তলা একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর, দুপুর ১২টায় পাগলা উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপণ ও দুপুর ১টায় আমড়িয়া ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপণের পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্য এসব কথা বলেন তিনি ।

এসময় সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী মাসুম বিল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেবুন নাহার শাম্মী, থানার ওসি কাজী মোক্তাদির হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হেকিম, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ কালাশাহ, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব হাসনাত হোসেন, পশ্চিম পাগলা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল হক, পাগলা হাইস্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ রমিজ উদ্দিন, হাজী আক্রম আলী দাখিল মাদ্রাসার সুপার রফিকুল ইসলাম, আমড়িয়া দাখিল মাদ্রাসায় সুপার আবু নছর মোহাম্মদ ইব্রাহীম, দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন, সাবেক চেয়ারম্যান জালাল উদ্দীন, ও কৃষকলীগ নেতা রহিম উদ্দিন  প্রমুখ।