‘সুনামগঞ্জে আসবে রেল, হাওরে হবে উড়াল সড়ক’

সময়ের ডাক ডেস্ক :: পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, হাওরের জেলা সুনামগঞ্জের আরও উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ অপেক্ষমান। সুনামগঞ্জে আসবে রেললাইন। হাওরে হবে উড়াল সড়ক। সুনামগঞ্জ নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ-ঢাকার যোগাযোগ সড়ক হবে।

তিনি বলেন- বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এই এগিয়ে যাওয়া মানতে পারে না স্বাধীনতাবিরোধী একটি চক্র, এদের থেকে সাবধান থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

রোববার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার আব্দুস ছত্তার মাস্টার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মেজর মাহফুজুর রহমান সবুজ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আব্দুস ছত্তার মাস্টার স্মৃতি বৃত্তি ও অনলাইন বেস্ট পারফর্মার শিক্ষকদের ক্রেস্ট ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, এখনকার শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনে সমৃদ্ধ উন্নত বাংলাদেশ গড়বে। এজন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে গুরুত্ব দিতে হবে। বর্তমান সরকারের সময়েই হাওরের জেলা সুনামগঞ্জে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ এগিয়ে যাওয়া মানতে পারছে না স্বাধীনতাবিরোধীরা।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় দেশের উন্নয়নের কথাই ভাবেন। বিশেষ করে অবহেলিত এলাকার উন্নয়ন নিয়ে ভাবনা বেশি প্রধানমন্ত্রীর। তিনি হাওর, পাহাড় ও চরের মানুষের জীবনযাপনকে আরও উন্নত দেখতে চান।

আব্দুস ছত্তার মাস্টার ফাউন্ডেশনের পরিচালক মো. মোখলেছুর রহমানের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুট, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন্নবী প্রমুখ।

পরে মন্ত্রী সাত কোটি চার লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিতব্য সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

এসময় জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইয়াসমিন রুমা, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা কেয়া, ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হোসেন, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কর, জেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজাদুল ইসলাম রতন, সুনামগঞ্জ পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র নুরুল ইসলাম বজলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।