জগন্নাথপুরে নবজাতক রেখে পালানোর ঘটনায় গ্রেফতার ১

সময়ের ডাক : সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নবজাতককে রেখে পালানোর ঘটনার রহস্যের জট খুলছে।

বুধবার পুলিশ এ ঘটনায় অভিযুক্ত নবজাতকের পিতা আলী আমজদকে গ্রেফতার করে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় কিশোরীর ভাই বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আলী আমজদ কিশোরীর খালাতো বোন জামাই। তার স্ত্রী সৌদি আরব থাকেন। কিশোরীর বয়সী তার এক মেয়ে ও ছেলে রয়েছে।

পুলিশ, মামলার বিবরণ ও কিশোরীর পরিবার সূত্র জানায়, চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারী উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের বালিকান্দি গ্রামের আলী আমজদ (৩৫) তার শ্যালিকা (স্ত্রীর খালাতো বোন) স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী (১৪) কে স্ত্রী বাড়িতে না থাকার সুযোগে বেড়ানোর কথা বলে তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ১ মার্চ পর্যন্ত আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণের ঘটনা কাউকে না বলতে বাধ্য করে।
এক পর্যায়ে কিশোরী মেয়েটি অন্তঃস্বত্বা হয়ে পড়ে।

গত ৭ নভেম্বর ওই কিশোরী জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কন্যা সন্তানের জন্ম দিলে শিশুটিকে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায় তারা।

এঘটনায় কিশোরীর ভাই বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানায় মঙ্গলবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই আলী আমজদকে গ্রেফতার করে।

জগন্নাথপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, অভিযুক্ত আলী আমজদকে গ্রেফতার করে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নবজাতক কন্যা শিশুটিকে ৯ নভেম্বর সমাজসেবা অধিদপ্তর সিলেটের শিশু নিবাসে পাঠানো হয়েছে।