চেতনায় বঙ্গবন্ধু….

>>>>>মোঃ সফিকুল ইসলাম বিক্রমপুরী<<<<<

বঙ্গবন্ধু মানে প্রাণের স্পন্দন
বঙ্গবন্ধু মানে জগৎশ্রেষ্ঠ বীর
বঙ্গবন্ধু মানে যুগের কিংবদন্তী
বঙ্গবন্ধু মানে চির উন্নত শির।

বঙ্গবন্ধু মানে একটি বিশ্ববিদ্যালয়
বঙ্গবন্ধু মানে একটি গবেষনাগার,
বঙ্গবন্ধু মানে মনোহর স্বপ্নের বাণী
বঙ্গবন্ধু মানে বাঙালির জয় বাংলা চিৎকার।

বঙ্গবন্ধু মানে আমার লাল সবুজের পতাকা
বঙ্গবন্ধু মানে শতকোটি বাঙালির শোলজার কমান্ডার
১৫ আগস্ট ১৮ কোটি বাঙালির হাহাকার!

বঙ্গবন্ধু মানে আমার হাতে আজ
মত প্রকাশের স্বাধীন মাইক্রো ফোন।
বঙ্গবন্ধু মানে আমার রাতের নিশ্চিন্ত ঘুম।
বঙ্গবন্ধু মানে আমার সুস্থির সতেজ সকাল,
বঙ্গবন্ধু মানে ইতিহাস, যা বয়ে চলে মহাকাল।

বঙ্গবন্ধু মানে সদ্য উদিত চাঁদ,
বঙ্গবন্ধু মানে জলন্ত সূর্য, অঙ্গার।
বঙ্গবন্ধু মানে পাক হানাদার বাহিনীর
বুকের ভেতর কাঁপন ধরা হুংকার।

 

বঙ্গবন্ধু মানে শেখ হাসিনার গর্বিত পিতা,
বঙ্গবন্ধু মানে গোপালগঞ্জের
গর্বিত মায়ের গর্ভে ফুটন্ত ফুল।
বঙ্গবন্ধু মানে পরাধীনতার শিকলে বাঁধা
অত্যাচার আর বর্বরতার বিরোদ্ধে
এক তীব্র আলো রশ্মী।

বঙ্গবন্ধু মানে শোষণ মুক্তি উন্নত ধারা বহমান
দাবী আদায় এবং প্রতিবাদের একটিই নাম
বঙ্গবন্ধু- শেখ মুজিবুর রহমান।

 

স্বাধীন মত প্রকাশের স্বাধীনতা আর শিক্ষা সমবায়ী কৃষি, সমাজ গঠনের অপ্রতিদ্বন্দ্বী এক মানবের নাম- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

যার যায় সেই বুঝে হারানোর ব্যথা,
শেখ হাসিনা ৭৫ / ১৫ আগস্ট হারাইয়াছেন বাবা মা ভাই স্বজন হারাবার ব্যথা তার চির অনুভবে।

হে ৭৫ তুমি নিষ্ঠুর তুমি পাষাণ।
জাতির গর্ব জাতির ঝান্ডা
জাতীয় বীর জাতির নায়ক
জাতির অহংকার গর্ব বাঙালি জাতির সকল স্বপ্ন সম্বাবনা শেখ মুজিবুর রহমানকে কেড়ে নিয়ে এই জাতিকে কলংকিত করেছে কিছু ঘৃণ্য নরপশু।

জাতির উচু শিরকে তুমি দলিত করেছ, জাতির জনকের রক্তে যার বাস্তবতা কোন অভিনয় চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বর্বরতা আর ক্ষতি উম্মোচন করা যাবেনা,
১৫ আগস্ট শুধুমাত্র অন্তর নিংড়ানো ভালোবাসাই পারে অনুভব করতে।
নিয়তির নিষ্ঠুর ৭৫
তুমি অমানিশার আঁধার ৭৫,
তুমি অশুভ কলংকিত ৭৫,
তুমি বীরেরে দিয়েছো মিটায়ে ৭৫,
তুমি সুখের আশ্রয় করেছ খান খান ৭৫,
তুমি নিষ্ঠুর নির্বোধ ৭৫।
তুমি পরিত্যজ্য যেনো তোমার জন্মই হয়নি ৭৫,
গননার গন্ডী হতে মুছবো তোমায় হে ৭৫,
আমি বাংলার এক বিন্দু উর্বর মাটি হে ৭৫,
আমি বাংলার বীরের উত্তরসূরি হে ৭৫,
আমি প্রতিবাদের ঝান্ডা হে ৭৫,
আমি বীরের ঝরে যাওয়া রক্ত মাটির নির্যাস হে ৭৫,
তোমার মন্দ কুৎসা রচনা করতে এসেছি হে ৭৫,
তোমায় নিয়ে কবিতা লিখবো বলেই আমি জন্মেছি হে ৭৫,
ভালোবাসা নয় ঘৃণার বৃষ্টি প্রবাহিত করতে এসেছি আমি হে মীরজাফর ৭৫।
আমি হিংস্র বাংলার দামাল শির উচু করে বলবো তুমি কলংকিত হে ৭৫,
আমি পস্তর খন্ড তোমায় মিশিয়ে দেব নিশ্চিহ্ন করে দেব হে ৭৫।

আমি অগ্নিকুন্ড তোমায় ছাড়খার করে দেব হে ৭৫,
আমি আইলা সিডর হারিকেন প্রলয় তোমায় উড়িয়ে নেবো গনিত হিসেব হতে হে ৭৫।
দুমরে মুছড়ে নিষ্পেষিত করবো
পেলাবনে ভাসিয়ে সমুদ্র জ্বলে
নিশ্চিহ্ন করবো হে ৭৫।

সেই ৭৫ হতে বীরের রক্ত
বিকেল হলেই পশ্চিম আকাশে
ভেসে উঠে লাল আভা
বাংলার বিবেক আকাশে জানান দিয়ে রাতের আঁধারে মিশে যায়,
বিকেলের রক্তিম আকাশ আমার চেতনায় কড়া নেড়ে যায়,
প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়,
আমার ব্যথিত হৃদয়ে
আমি বীরের বিয়োগে বীর
বীরের রক্তে ভেজা রক্ত,
আজও শুকায় নি সে আমার অন্তরে তরতাজা রক্ষিত,
এ আত্মত্যাগ মিটে যাবার নয়,
শেখ হাসিনা দৃষ্টিতে মানুষ বলেই মনে হয়,
ভিতরে তিনি ক্ষত বিক্ষত চৌচির
চরম অবহেলায় চরম শোকে চরম প্রতিভা তিনি।
ট্রাজেডি স্বাদের জন্ম দেয় আর আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবন এক জীবন্ত ট্রাজেডি,
বীরের বিযোগে বীর যোদ্ধা তিনি
বিজয় নীতির প্রতীক তিনি
৭৫ এর রক্তের লালিমা তিনি,
কষ্ট আঘাতে প্রজ্জ্বলিত সচ্ছ নিঁখুত হীরার খনি
তিনি।

৭৫ কে লক্ষ বিন্দু করবেন তিনি,
বীরের রক্ত বীরের বাণী
শেখ হাসিনা বিজয় খনি,
হে ৭৫ তুমি কত বাবা মা ভাই বোন এর রক্তে তোমাকে কলংকিত করেছ?
৭৫ তুমি হায়না রাক্ষস তুমি বাংলার আকাশে শকুন উড়িয়েছো। তুমি হায়না বর্বর, পাষাণ।
৭৫ তুমি ধ্বংস করেছ বীর,
ধ্বংস করেছ বাংলার আকাশ
স্বদেশের ভূমি সমুদ্র।

হে ৭৫ আমি সকল ধ্বংসে
সন্নিবেশিত মুন্ডু আমার প্রতিবাদী পিষ্ট ঝান্ডায় রক্ষিত রক্তে তোমার প্রতিবাদে কবিতা লিখবো বলেই জন্মেছি হে ৭৫….

৭৫ যে বীর তোমায় জন্ম দিয়েছেন ৭১-এ
৭৫ তুমি শিশু তখন চার বছরের,
শিশু তুমি করলে ক্ষরণ নিজ পিতাকে!
হতাশ বিবেক শিশু ৭৫ তোমার ধারে….।