প্রচ্ছদ > সিলেট প্রতিক্ষণ > কোরবানীর হাট: সিলেটে কাজ করছে ২৭টি ভেটেরিনারি মেডিকেল টীম

কোরবানীর হাট: সিলেটে কাজ করছে ২৭টি ভেটেরিনারি মেডিকেল টীম

সিলেট প্রতিক্ষণ

সময়ের ডাক :: আসন্ন ঈদুল আযহা ২০১৯ উপলক্ষ্যে নগর ও সিলেট জেলার ১৩ টি উপজেলায় ২৯টি স্থায়ী এবং ২৮টি অস্থায়ী গবাদিগশুর হাট বসছে। জরুরী ভেটেরিনারি সেবা প্রদানের জন্য জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের তত্ত্বাবধানে এসব হাটে ২৭টি ভেটেরিনারি মেডিকেল টীম কাজ করছে।

জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসে এ সংক্রান্ত বিষয়ে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে (মোবাইল নং- ০১৭১১৪৮৪৯৪৫/ ০১৭১১৩০৫৭৬০)।

আসন্ন ঈদ উপলক্ষ্যে পশুর হাটে জরুরী ভেটেরিনারি মেডিকেল টীমের কার্যক্রম সম্পর্কে জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. মো. আতিয়ার রহমান জানান, মানুষ যাতে নিরাপদ ও সুস্থ পশু কিনতে পারে, অসুস্থ ও অনিরাপদ পশু কেউ যাতে বিক্রি করতে না পারে সেদিকে টীম নজর রাখবে। তাছাড়া পশুর ধকল জনিত বিভিন্ন সমস্যার চিকিৎসা ও পরামর্শ প্রদান করবেন।

জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার আরও জানান, বিজ্ঞানসম্মত ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে পশু জবাই ও মাংস প্রক্রিয়াকরণের বিষয়ে সিলেটে ১২৬ জনকে ইতিমধ্যে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এবার সিলেটে প্রায় ১ লক্ষ ৭ হাজার কোরবাণীযোগ্য পশু রয়েছে। গত ৩১ জুলাইয়ের তথ্য অনুযায়ী সিলেটে ৭০ হাজার গরু, ৩ হাজার মহিষ ও ৩৪ হাজার ছাগল-ভেড়া কোরবাণীর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। এছাড়া অন্য জেলা হতে বেশ কিছু পশু সিলেটে আসছে, পাশাপাশি অন্য জেলাতেও সিলেট জেলা হতে কোরবাণীর পশু নিয়ে যাচ্ছে। ২০১৮ সনে সিলেট জেলায় প্রায় ৯৭০০০ পশু (৬৫০০০ গরু, ২৬০০ মহিষ ও ২৯৪০০ ছাগল-ভেড়া) কোরবাণী করা হয়েছিল।

কোরবাণীর পশুকে বাড়িতে আনার পর ক্রেতাগণ যেন পশুকে সহজ পাচ্য খাবার যেমন ঘাস, খড় ও প্রচুর পানি খাওয়ান এবং চাল, গম অথবা ভাত/জাউ না খাওয়ান এবিষয়ে পরামর্শ প্রদানের জন্য জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার সকল টীমকে নির্দেশনা প্রদান করেন।