প্রচ্ছদ > জাতীয় > বিএনপির রাজনীতি ও আন্দোলন ঘুরপাক খাচ্ছে

বিএনপির রাজনীতি ও আন্দোলন ঘুরপাক খাচ্ছে

জাতীয়

সময়ের ডাক ডেস্ক: আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন সুশাসনের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। গ্রাম শহরে পরিণত হচ্ছে। এটি বিএনপির সহ্য হচ্ছে না। তাই তাদের রাজনীতি ও আন্দোলনে এক জায়গায় ঘুরপাক যাচ্ছে।

বুধবার (০৭ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি আরও বলেন, দেশে যখন ডেঙ্গু নিয়ে রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, সাহিত্যিক ও অভিনয় শিল্পীসহ সব শ্রেণী পেশার মানুষ জনসচেতনতায় কাজ করছে। তখন বিএনপি নির্বাচন দাবি করছে। তবে নির্বাচন হবে। সেটি ২০২২ সালে। সেদিন পর্যন্ত তাদের অপেক্ষা করতে হবে।
হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এখন আর গ্রামে কোনো ছেড়া কাপড় পড়া লোক দেখা যায় না। একমুঠো কেউ ভাত চায় না। গ্রামের রাস্তায়ও বাতি জ¦লে। এটি বিএনপির সহ্য হয় না।
বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গমাতা শুধু একজন গৃহিনীই ছিলেন না। তিনি সন্তানদের লেখাপড়া শিখিয়েছেন। তাদের মূল্যবোধ ও দেশত্ববোধ শিখিয়েছেন। সংসারটাকেও আগলে রেখেছেন। কারণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বেশিরভাগ সময়ই কারাগারে থাকতেন। তার অবর্তমানে সব সংসারসহ রাজনীতির দায়িত্বও পালন করেছেন। বাংলাদেশের ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর নামের সঙ্গে যা কিছু জড়িয়ে আছে তার সবই ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের প্রেরণা। বঙ্গবন্ধু যেসব প্রতিকুল অবনস্থা অতিবাহিত করেছেন, তা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যারা গবেষণা করেন, তাদের লিপিবদ্ধ করার আহ্বান জানান হাছান মাহমুদ।
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সারাহ বেগম কবরীর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ মান্নান, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, অভিনেত্রী অরুনা বিশ^াস, রোকেয়া প্রাচীর, তানভীন সুইটি, শাহনূর, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আকতার হোসেন প্রমুখ।