প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > চিটাগংকে ১৬৯ রানের টার্গেট দিলো সিলেট

চিটাগংকে ১৬৯ রানের টার্গেট দিলো সিলেট

খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক : বিপিএলে আজ দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দিনের প্রথম ম্যাচে মাঠে নেমেছে চিটাগং ভাইকিংস ও সিলেট সিক্সার্স। টসে জিতে ব্যাট করার সিধান্ত নেন সিলেট সিক্সার্সের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ রান করে সিলেট। জয়ের জন্য চিটাগংকে করতে হবে ১৬৯ রান।ম্যাচটি শুরু হয় দুপুর সাড়ে ১২টায়। শুরুতেই ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে সিলেট।

এর আগে, প্রথমে ওপেন করতে আসে সিলেটের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও লিটন দাস। প্রথম ওভারের ফ্রাইলিংকের দ্বিতীয় বলে ডেলপোর্টের হাতে ক্যাঁচ তুলে দিয়ে জুটি ভাঙেন লিটন(০)।এর পরের ওভারের আবারো বিপত্তি। নাঈম হোসেনের বলে মোসাদ্দেকের হাতে ক্যাঁচ দেন গত ম্যাচে না থাকা নাসির(৩)। আবারো সেই ফ্রাইলিংক। দ্বিতীয় ওভারে এসে সাব্বিরকে(০) শিকার করেন এই বোলার।

৬ রানে টপঅর্ডারের ৩ উইকেট হারালে চাপে পড়ে সিলেট সিক্সার্স। সেই পরিস্থিতিতে শক্ত হাতে দলের হাল ধরেন আফিফ হোসেন। প্রথমে ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে চাপ কাটিয়ে ওঠেন তিনি। দারুণ খেলছিলেন এ তরুণ। খালেদ আহমেদের শর্ট বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ফেরার আগে খেলেন ২৮ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৪৫ রানের নান্দনিক ইনিংস।

একে একে ফিরে গেলেও একপ্রান্ত আগলে থেকে যান ওয়ার্নার। প্রথমে দেখেশুনে খেললেও সময় গড়ানোর সঙ্গে খোলস ছেড়ে বের হন তিনি। ছোটাতে থাকেন রানের ফোয়ারা। তাকে যোগ্য সমর্থন দেন নিকোলাস পুরান। ফিফটি তুলে নেন ওয়ার্নার। প্রথমবারের মতো খেলতে এসেছেন বিপিএলে। সেই হিসেবে এ টুর্নামেন্টে এটি তার প্রথম ফিফটি। তবে ফিফটির পর খুব বেশি দূর এগোতে পারেননি তিনি। ফ্রাইলিংকের বলে রিভার্সসুইপ খেলতে গিয়ে মুশফিকুর রহিমকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন অজি ওপেনার। তিনি থামেন ৪৭ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ব্যক্তিগত ৫৯ রানে।পরে শুধু চলে পুরান শো। ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে চিটাগং বোলারদের কচুকাটা করেন তিনি।

আগে দু’দলই এই আসরে একটি করে ম্যাচ খেলেছে। যেখানে উদ্বোধনী ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে জয় পায় চিটাগং। তবে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরেছে সিলেট সিক্সার্স।

চিটাগং ভাইকিংস : মোহাম্মদ শাহজাদ, ক্যামেরন ডেলপোর্ট, মোহাম্মদ আশরাফুল, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), সিকান্দার রাজা, মোসাদ্দেক হোসেন, রব্বি ফ্রাইলিঙ্ক, নাঈম হাসান, সানজামুল ইসলাম, আবু জায়েদ, খালেদ আহমেদ।

সিলেট সিক্সার্স : লিটন দাস, ডেভিড ওয়ার্নার (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নিকোলাস পুরন, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, অলক কাপালী, তাসকিন আহমেদ, সন্দীপ লামিচেন, আল আমিন হোসেন, মো. ইরফান।