শেষ সময়ে আর্জেন্টিনাকে হারালো ব্রাজিল

স্পোর্টস ডেস্ক : সুপার ক্লাসিকোতে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। সৌদি আরবে মুখোমুখি দেখায় নেইমার-কুতিনহো-জেসুসরা ১-০ গোলে হারিয়েছে মেসি-ডি মারিয়া-হিগুয়েন-আগুয়েরোহীন আর্জেন্টিনাকে। নির্ধারিত সময়ের পর যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে ব্রাজিলের জয়সূচক গোলটি করেন মিরান্ডা।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে শেষ পাঁচ ম্যাচে ব্রাজিলের এটি তৃতীয় জয়। তবে, গত বছর জুনে মেলবোর্নে আগের মুখোমুখি লড়াইয়ে ১-০ গোলে জিতেছিল আর্জেন্টিনা। অন্য ম্যাচটি ড্র হয়।

রাশিয়া বিশ্বকাপের পর ব্রাজিল নিজেদের চার ম্যাচের চারটিতেই জিতলো আর আর্জেন্টিনা চার ম্যাচে প্রথম হারলো। এর আগে তিতের ব্রাজিল এল সালভেদর, আমেরিকা, সৌদি আরবকে হারিয়েছিল। আর ভারপ্রাপ্ত কোচ লিওনেল স্কালোনির আর্জেন্টাইন শিষ্যরা মেসি-আগুয়েরো-ডি মারিয়া-হিগুয়েনদের ছাড়া গুয়েতামালা, ইরাককে উড়িয়ে দিয়েছিল। তবে, কলম্বিয়ার বিপক্ষে ড্র করে আর্জেন্টিনা।

সৌদি আরবের জেদ্দায় কিংস আব্দুল্লাহ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতে কিছুটা ছন্নছাড়া ছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু, প্রথম সুযোগটি পেয়েছিল স্কালোনির শিষ্যরাই। নবম মিনিটে জিওভানি লো সেলসোর জোরালো শট ব্রাজিলের গোলবারের অল্প বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়। ২৩তম মিনিটের মাথায় লিভারপুলের ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক আলিসনের ভুলে আঞ্জেল কোরেইয়া বল পেলেও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। শেষ সময়ে পা লাগিয়ে বল বিপদমুক্ত করেন আলিসন।

২৮তম মিনিটে ব্রাজিলকে হতাশ করেন ম্যানচেস্টার সিটির তারকা নিকোলাস অটামেন্ডি। রিয়াল মাদ্রিদের তারকা ক্যাসিমিরারো থেকে বল পেয়েছিলেন মিরান্ডা। আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরোকে ফাঁকি দিয়ে শটও নিয়েছিলেন তিনি, কিন্তু গোললাইনে দাঁড়িয়ে থাকা অটামেন্ডি শেষ সময়ে বল ক্লিয়ার করেন। এরপর জুভেন্টাসের তারকা পাওলো দিবালার ফ্রি-কিক থেকে নেওয়া বাঁকানো শট ব্রাজিলের গোলবারের ঠিক বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়।

বিরতিতে যাওয়ার আগে আর্জেন্টিনার ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ফ্রি-কিক পায় ব্রাজিল। কিন্তু, আগের ফ্রি-কিক গুলোতে নেইমার ঠিকঠাক শট নিলেও এবার আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডারদের বাধা ডিঙ্গাতে পারেননি।

বিরতির পর ৭০তম মিনিটে নেইমারের ফ্রি-কিক থেকে বল পান বার্সেলোনার নতুন তারকা আর্থার মেলো। তার দারুণ শট অসাধারণ দক্ষতায় রুখে দেন আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক রোমেরো। ৭৭ মিনিটের মাথায় নেইমারের আরেকটি ফ্রি-কিকের সুযোগ নষ্ট হয়।

নির্ধারিত সময় শেষে সবাই যখন ড্র ম্যাচের হিসেব কষছিল তখন সব হিসেব পাল্টে দেন ইন্টার মিলানের ডিফেন্ডার মিরান্ডা। চার মিনিট যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে জয়সূচক গোল পেয়ে যায় তিতের শিষ্যরা। অধিনায়ক নেইমারের কর্নারে হেড করে আর্জেন্টিনার জালে বল জড়িয়ে দেন তিনি।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরাই। এই ম্যাচে জয়ের ফলে ব্রাজিলের ৪৫ জয়ের বিপরীতে আর্জেন্টিনার জয়ের সংখ্যা ৩৯। দুই দলের মুখোমুখি দেখায় ২৫টি ম্যাচ ড্র হয়।