ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী, অভিভাবকদের পদচারণায় মুখর সিলেট

সময়ের ডাক : ভর্তিযুদ্ধে বসেছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তিচ্ছু ৭৬ হাজার শিক্ষার্থী।

শনিবার (১৩ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয় ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা। দুপুর আড়াইটা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পদচারণায় এখন মুখর সিলেট শহর। পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৭৬ হাজার ১৬০ জন শিক্ষার্থীর সঙ্গে রয়েছে কয়েক হাজার অভিভাবক। ফলে তিল ধারণের ঠাঁই নাই সিলেট শহরের হোটেল মোটেলগুলোতে।

ভর্তি পরীক্ষা সামনে রেখে শুক্রবার (১২ অক্টোবর) সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শিক্ষার্থীরা আসতে শুরু করে। সিলেটমুখী শিক্ষার্থীর স্রোত রাত হলে আরও বাড়ে। হোটেল না পেয়ে অনেক শিক্ষার্থীকেই গাড়িতে রাত্রিযাপন করতে হয়।

হোটেল লা-রোজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাবু রহমান জানান, সিলেটের আবাসিক হোটেলগুলোতে কক্ষ সর্বোচ্চ ৫ থেকে ৬ হাজার। সপ্তাহ-দশদিন আগেই তাদের সব কক্ষ বুক হয়ে গেছে। সিলেটের সব আবাসিক হোটেলের একই অবস্থা।

চট্টগ্রাম থেকে আসা শিক্ষার্থী রাফি আহমেদ বলেন, ‘পরীক্ষা দিতে এসে থাকার মতো পরিচিত কোনো জায়গা না থাকায় অনেক কষ্টে লালবাজারে একটি আবাসিক হোটেলে উঠেছি। সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা দিয়ে যেতে চাই।’

এদিকে সকাল থেকে সিলেট শহরের পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোর সামনে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে সিলেট শহরজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আব্দুল ওয়াহাব জানান, পুরো শহরে নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। রাস্তায় যাতে বিঘ্ন না ঘটে এ জন্য ট্রাফিক পুলিশ কাজ করছে।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার ভর্তিযুদ্ধে ৭৬ হাজার ১৬০ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। মোট ৫৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৬১৩টি ও ‘বি’ ইউনিটে ৯৯০টি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এছাড়া ইউনিটভুক্ত আসন ছাড়াও সংরক্ষিত আসনে সর্বমোট ১০০ জন শিক্ষার্থী (মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কোটায় ২৮ জন, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী/জাতিসত্তা/হরিজন-দলিত কোটায় ২৮, প্রতিবন্ধী কোটায় ১৪, চা শ্রমিক কোটায় ৪, বিকেএসপি কোটায় ৬ ও পোষ্য কোটায় ২০) বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি করা হবে।

‘এ’ ইউনিটের ৬১৩টি আসনের বিপরীতে ২৮ হাজার ৮০৩ জন এবং ‘বি’ ইউনিটে ৯৯০টি আসনের বিপরীতে ৪৭ হাজার ২৬৫ জন আবেদন করেছেন।