৩৬০ ফুট উঁচুতে উঠে বিয়ের প্রস্তাব

লাইফস্টাইল ডেস্ক : দৈনন্দিন জীবনে বিয়ে একটা খুব স্বাভাবিক ব্যাপার।পারিবারিকভাবে বিয়ে করলে সাধারণ রবপক্ষ কনের বাড়িতে প্রস্তাব পাঠান। এছাড়া তরুণ-তরুণী নিজের পছন্দে বিয়ে করলে বিয়ের প্রস্তাবটা সারপ্রাইজ দেয়, সে চেষ্টা সবাই করে থাকেন৷ এ জন্য রেস্টুরেন্ট, সমুদ্রসৈকত, বা অন্য কোনো সুন্দর পরিবেশ বেছে নেন প্রেমিকরা।

তবে অদ্ভুত এক কাণ্ড ঘটালেন মাইকেল গার্সিয়া নামের এক যুবক৷৩৬০ ফুট উঁচুতে উঠে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলেন তিনি।এ সময় শুধু প্রস্তাব দিয়ে ক্ষান্ত হননি এই প্রেমিক আংটিও পরিয়ে দিয়েছেন।

মাইকেল গার্সিয়া ও ফালো ওর্থের সম্পর্ক আড়াই বছরের৷ এবং এই দীর্ঘ সময়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার জন্য এক বিনোদন পার্ককেই বেছে নিলেন মাইকেল৷ শুধু তাই নয়, বান্ধবীর অনিচ্ছা সত্ত্বেও পার্কের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর রাইড- স্লিংশটে নিয়ে উঠলেন তাকে৷

এই স্লিংশট অনেকটা গুলতির মতো কাজ করে৷ চেয়ারে বসে থাকা আরোহীদের পেছনে টেনে ৩৬০ ফুট উঁচুতে ছেড়ে দেয়া হয়৷ আবার নিচে পড়তে শুরু করার আগে বেশ কিছুক্ষণ আরোহীরা শূন্যেই অবস্থান করেন৷

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাইকেলের শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যায়, স্লিংশট চলতে শুরু করার ঠিক আগে ফালো বলছেন, ‘আমি এটা করতে চাই না৷’ কিন্তু তখন আর কিছু করার নেই৷ ততক্ষণে আকাশে ছোড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে৷

মাইকেল বারবার ফালোকে বিভিন্নভাবে সান্ত্বনা দেয়ার চেষ্টা করলেও, তাতে লোভ হচ্ছিল না মোটেই৷

স্লিংশট তাদের আকাশে ছুড়ে দেয়ার আগমুহূর্তে মাইকেল পকেট থেকে বের করলেন আংটি৷ সেটি দেখিয়ে বললেন, আমি বাকি জীবন তোমার সঙ্গে কাটাতে চাই৷

ততক্ষণে অবশ্য তারা মাটি থেকে ৩৬০ ফুট উঁচুতে৷ ফালো বিশ্বাস করতে পারছিলেন না, মাইকেল বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার জন্য এই সময়টিকেই বেছে নেবেন৷ একই সঙ্গে প্রচণ্ড ভয়ে চিৎকারের পাশাপাশি আনন্দ, কান্না, বিস্ময়ের মতো অনুভূতির খেলা দেখা যাচ্ছিল তার মনে৷

মাইকেলের অবশ্য দাবি, এই চিৎকারের মধ্যেও ফালো তার প্রস্তাবে ‘হ্যাঁ’ বলেছেন৷