প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > লাওসের বিপক্ষে সিলেটের মাঠেও গোল চান বাংলাশে

লাওসের বিপক্ষে সিলেটের মাঠেও গোল চান বাংলাশে

খেলাধুলা শীর্ষ সংবাদ সিলেট প্রতিক্ষণ

সময়ের ডাক : দিনটি ছিল ২০১৬ সালের ১০ অক্টোবর। এশিয়া কাপ বাছাই পর্বের প্লে-অফে ভুটানের বিপক্ষে ৩-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। সে হারে অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছিল বাংলাদেশের ফুটবল। নির্বাসনে যেতে হয়েছিল আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে। সেই নির্বাসন শেষ হয় চলতি বছরের ২৭ মার্চ। সেদিন লাওসের মাটিতে দেশটির বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ।

ওই ম্যাচে বাংলাদেশ প্রথমার্ধেই দুই গোলে পিছিয়ে পড়েছিল। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে দ্বিতীয়ার্ধে দুই গোল শোধ করে ম্যাচটি ড্র করেন জাফর ইকবাল ও মাহবুবুর রহমান সুফিলরা। তাদের গোলেই মূলত ড্র করে বাংলাদেশ।

সেদিন ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ৯ মিনিট বাকি থাকতে জাফর ইকবাল গোল করেছিলেন। পরে ইনজুরি সময়ে সুফিলের গোল ড্রয়ের স্বাদ দেয় বাংলাদেশকে।

সেই লাওসের বিপক্ষে আজ আরেকটি ম্যাচের লড়াইয়ে নামছেন সুফিলরা। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে উদ্বোধনী ম্যাচেই মুখোমুখি হচ্ছে ‘বি’ গ্রুপে থাকা বাংলাদেশ ও লাওস। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি। গ্রুপে দুটি করে ম্যাচ খেলবে প্রতিটি দল। তাই একটি ম্যাচে জয়ই দেখাতে পারে সেমিফাইনালের পথ।

এই গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্টের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও গোল করতে চান জাফর-সুফিলরা। তারা বলছেন, যদি একাদশে সুযোগ মেলে, তবে নিজেদের উজাড় করে দিয়ে গোল করতে চান।

জাফর ইকবাল বলছিলেন, ‘লাওসের বিপক্ষে আগে গোল করেছি। এই দলটি সম্পর্কে আমাদের জানা আছে। এবার যদি সুযোগ পাই, তবে গোল করতে চাই।’

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে ভালো কিছু করার প্রত্যয় শোনা গেল জাফরের কণ্ঠে।

সুফিলের কণ্ঠেও গোল করার আকাক্সক্ষা, ‘প্রীতি ম্যাচে লাওসের বিপক্ষে দ্বিতীয় গোল করে দলকে ড্র করতে সাহায্য করেছিলাম। এবার নিজেদের মাঠে আশা করছি আমরা জিততে পারবো। আমি যদি সুযোগ পাই, তবে গোল করতে চাই। স্ট্রাইকারের কাজই তো গোল করা।’

স্বাগতিক হিসেবে লাওসের বিপক্ষে নিজেদেরকে কিছুটা এগিয়েই রাখলেন সুফিল।

সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের ছেলে সুফিল। সিলেট বিভাগীয় দলের হয়ে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে খেলেছেন তিনি। আজ লাওসের বিপক্ষে ম্যাচে মাঠ, পরিবেশ সবকিছুই তাই তার পরিচিত। এটা তাই চমৎকার কিছু করার মঞ্চ হিসেবে সুফিলের জন্য দারুণ সুযোগ। অতি সম্প্রতি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ভুটানের বিপক্ষে গোল করা সুফিলের আত্মবিশ^াসও প্রবল।

তৃতীয় বিভাগের দল দিলকুশা ক্লাব থেকে একসাথে ওঠে এসেছেন জাফর ও সুফিল। দু’জনের মধ্যে বোঝাপড়াও দারুণ। আজ মাঠে নামার সুযোগ হলে, সেই বোঝাপড়া কাজে লাগিয়ে দলের জন্য সেরাটা দিতে চান তারা।