বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিনের রায় শুক্রবার

সময়ের ডাক ডেস্ক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাহ উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলার রায় আগামী শুক্রবার ঘোষণা করা হবে। গত ১৩ আগস্ট শিলংয়ের বিচারিক হাকিম ডি জি খারশিংয়ের আদালত শুনানি শেষে এ রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রেখেছিল। সেই রায় ঘোষণার জন্য ২৮ সেপ্টেম্বর দিন ঠিক করে দেয়া হয়েছে বলে সালাহ উদ্দিনের আইনজীবী জানিয়েছেন। বৈধ কাগজপত্র ছাড়া ভারতে প্রবেশের অভিযোগে বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিন আহমদের বিরুদ্ধে তিন বছর ধরে এ মামলা চলছে। অভিযোগ প্রমাণ হলে এ আইনে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে । অবশ্য বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিনের দাবি, তাকে বাংলাদেশ থেকে অপহরণ করা হয়েছিল।

১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার এপিএস ছিলেন সালাহ উদ্দিন আহমেদ। এরপর প্রশাসনের চাকরি ছেড়ে ২০০১ সালে কক্সবাজার থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। এরপর তিনি বিএনপির নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকারের যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী হন। ভারতে যখন তিনি আটক হন তখন তিনি বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ছিলেন। সেখানে আটক থাকা অবস্থায়ই বিএনপির ষষ্ঠ কাউন্সিলে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের সদস্য মনোনীত হন সালাহ উদ্দিন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১০ মার্চ ‘নিখোঁজ’থাকার দুই মাস পর ১১ মে শিলংয়ে সালাহ উদ্দিন আহমেদের খোঁজ পাওয়া যায়। শিলং পুলিশ তাকে আটক করার দাবি করলেও সালাহ উদ্দিনের দাবি, তিনি নিজেই পুলিশের কাছে গিয়েছেন। পরে শিলং থেকে তিনি স্ত্রী হাসিনা আহমেদকে ফোন করেন।