শিশুদের মৌসুমি প্রতিযোগিতায় উপস্থিত বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন হবিগঞ্জ জেলা

সময়ের ডাক ডেস্ক : বাংলাদেশ শিশু একাডেমী, শিশু-কিশোরদের মৌসুমি প্রতিযোগিতায় ‘উপস্থিত বিতর্ক’ বিষয়ে বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতার্কিকরা। গতকাল সোমবার সকাল দশটা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত কবি নজরুল অডিটরিয়াম উপস্থিত বিতর্কসহ আরো তিনটি বিষয়ের উপড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সিলেট বিভাগের চারটি জেলার বিভিন্ন স্কুলের বিতার্কিকরা অংশ গ্রহন করে।

চূড়ান্ত পর্বে বিতর্কের বিষয় ছিল ‘সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেইসবুকই মানুষকে অসামাজিক করে তুলছে।’ বিষয়ের পক্ষে বির্তক করে হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালযের বিতার্কিকরা ও বিপক্ষে বির্তক করে মৌলভীবাজার জেলার দি ফ্লাওয়ার কেজি এন্ড হাই স্কুলের বিতার্কিকরা। উক্ত বিষয়ের উপর ৩০ মিনিট যুক্তি, তর্ক করে তথ্য,উপাত্ত্ব দিয়ে বিশ্লেষন করে বক্তব্য দিয়ে হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালযের বিতার্কিকরা জয়ী হয়।

হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতার্কিকরা হলেন. প্রথম বক্তা ফাতিন ইশরাক, দ্বিতীয় বক্তা ইশতিয়াক রহমান ওয়াসী, তৃতীয় বক্তা প্রদীপ্ত রায় সরকার ও দলনেতা লুৎফুর রহমান তহবিলদার। চূড়ান্ত বির্তকে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন, এমসি কলেজের গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন আহমদ, শিশু একাডেমীর প্রাক্তন জেলা সংগঠক মাহবুবুজ্জামান চৌধুরী, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর আবৃত্তি প্রশিক্ষক জ্যোতি ভট্টাচার্য। বির্তকে মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন জেলা কালচারাল অফিসার অসিত বরণ দাশগুপ্ত। বির্তক শেষে প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক দেবুজিৎ সিনহার কাছ থেকে পুরষ্কার গ্রহন করে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী বিতার্কিকরা।

উল্লেখ্য, লেখাপড়া ও পরীক্ষার মাঝে যেন শিশুদের অবসর সময় নষ্ট না হয় সেই উদ্দেশ্যে শিশুদের পারস্পরিক সু-সর্ম্পক গড়ে তোলা, হিংসা-বিদ্বেষ পরিহার, দলগত সমঝোতা বৃদ্ধি এবং শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিশু একাডেমী ১৯৭৮ সাল থেকে শিশুদের মৌসুমি প্রতিযোগিতা আয়োজন করে আসছে। পাঁচটি বিষয়ে উপজেলা পর্যায় থেকে এ প্রতিযোগিতা শুরু হয়। যোগ্যতার ভিত্তিতে উপজেলা, জেলা, অঞ্চল পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করে শিশুদের জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহনের মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতা শেষ হয়।