কমিশনের পদত্যাগের দাবি আরিফের

সময়ের ডাক : নির্বাচন প্রত্যাখ্যান আরিফের, কমিশনের পদত্যাগের দাবি নির্বাচন প্রত্যাখ্যান আরিফের, কমিশনের পদত্যাগের দাবি
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম, কেন্দ্র দখল ও কারচুপির অভিযোগ এনে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ দাবি করে তিনি নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছেন।

সোমবার (৩০ জুলাই) বিকেলে নগরীর কাজীটুলাস্থ নিজের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন এই দাবি করেন আরিফ।

এসময় তিনি নির্বাচনের বিভিন্ন কেন্দ্রের নাম উল্লেখ করে অবাধে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে নৌকা প্রতীকে সিল মারার অভিযোগ করেন। নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা বিএনপি এজেন্টদের বের করে দেয়ারও অভিযোগ জানান।

এসময় তিনি বলেন, নগরীর ৪৭টি কেন্দ্রে আমার এজেন্টকে বের করে দেয়া হয়েছে। ১৫টি কেন্দ্রে অবাধে নৌকা প্রতীকে সিল মারা হয়েছে।

 

সিলেটে ‘রাজনৈতিক সম্প্রীতির ইতিহাস ধূলিসাৎ হয়ে গেল’ মন্তব্য করে আরিফ বলেন, ‘এই নির্বাচন পুণ্যভূমি সিলেটকে কলঙ্কিত করেছে। এটা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য শুভ নয়। এই কালচার দেশের জন্য ক্ষতিকর।’

নির্বাচন কমিশনকে ‘মেরুদণ্ডহীন’ মন্তব্য করে আরিফ বলেন, ‘তাদের মতো অকার্যকর নির্বাচন কমিশন কিভাবে টেলিভিশনের সামনে এসে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি করে? ভোট ডাকাতির নির্বাচন আবার প্রমাণ করলো, এই নির্বাচন কমিশনার মেরুদণ্ডহীন। ইসির লজ্জা-শরম থাকলে তারা পদত্যাগ করতো।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কলিম উদ্দিন মিলন, কেন্দ্রীয় সদস্য ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ প্রমুখ