সিলেটে সর্বচ্চো তাপমাত্রা রেকর্ড

সময়ের ডাক :  সকাল হতে না হতেই প্রখর রোদ আর বেলা বাড়ার সাথে সাথে শুরু হয় দাবদাহ। এ দুইয়ে মিলে সিলেটের জনসাধারণের জন্য গরম অসহনীয় পর্যায় পৌঁছায়। গ্রামাঞ্চলে গাছ গাছলার কারণে গরমের এ তাপমাত্রা কিছুটা সহনীয় হলেও নগরবাসীর কাছে সহ্য করাটা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ে। এ গরমে শ্রমজীবী মানুষেরাই পড়েছেন বেশি বিপাকে।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) সিলেটের সর্বচ্চো তাপমাত্রা ছিলো ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা গত ২০ বছরে জুলাই মাসের সর্বচ্চো তাপমাত্রার রেকর্ড অতিক্রম করেছে বলে জানিয়েছে সিলেট আবহাওয়া অফিস।

এর আগে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে একবার সর্বচ্চো তাপমাত্রা ৩৯.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলেও গত বিশ বছরে জুলাই মাসে আজকের তাপমাত্রাই সর্বচ্চো তাপমাত্রা বলে সিলেট ভয়েসকে জানিয়েছেন সিলেট আবহাওয়া অফিসের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাইদ আহদম চৌধুরী।

 

সরেজমিনে নগরীর জিন্দাবাজারস্থ এয়ার কন্ডিশনযুক্ত বিভিন্ন বিপণিবিতানের সামনে সামান্য ঠাণ্ডা বাতাসের জন্য মানুষের ভিড় থাকতে দেখা গেছে। রিকশা চালকরা নগরীর বিভিন্ন জায়গায় গাছের ছায়ায় রিকশা থামিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা বিশ্রাম করছেন। বিভিন্ন বিল্ডিং কন্সট্রাকশনের কাজে নিয়োজিত শ্রমিকরা গরমের যন্ত্রণায় অনেকটা অসহ্য হয়ে অলস বসে থাকতেও দেখা গেছে। এমনকি অসহনীয় গরমে নিম্ন আয়ের মানুষরা লেবু, আখসহ বিভিন্ন রকম সরবত খেয়ে তৃষ্ণা নিবারণের চেষ্টা করছেন।

নগরীর আলীয়া মাদ্রাসার পাশে গাছের নিছে বসে আছেন রিকশা চালক কয়সর মিয়া। তিনি সিলেট ভয়েসকে বলেন, ‘গরম সহ্য করার মতো না। এক ট্রিপ মারার পর আর সাহস হচ্ছে না। তাই গাছের নিছে বসে বাছি। কিছুক্ষণ পর আরো এক ট্রিপ দিবো ভাবছি।’

তবে গরমে মানুষ অতিষ্ঠ হলেও রাতে হালকা বৃষ্টি এবং আগামীকাল থেকে টানা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।