প্রচ্ছদ > জাতীয় > খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির প্রতীকী অনশন 

খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির প্রতীকী অনশন 

জাতীয় শীর্ষ সংবাদ

সময়ের ডাক ডেস্ক: বেগম খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতের প্রতিবাদ আর মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি।

সোমবার সকাল ৯টায় রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে এ কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল থেকে দলীয় প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালনে মহানগর নাট্যমঞ্চে উপস্থিত হন নেতাকর্মীরা। ৯টায় কর্মসূচি থাকলেও সকাল ৮টার মধ্যে নেতাকর্মীরা কর্মসূচি স্থলে অবস্থান নেন।

বিএনপি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত রয়েছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, কবির মুরাদ, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহদপ্তর সম্পাদক তাইফু ইসলাম টিপু।

এদিকে মহানগর নাট্যমঞ্চ ও এর আশপাশে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য ছাড়া পোশাকধারী এবং সাদা পোশাকের কোনো পুলিশ দেখা যায়নি।

এবছরের ৮ ফেব্রুয়ারি বকশীবাজারে কারা অধিদপ্তরের প্যারেড গ্রাউন্ডে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, ড. কামালউদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেন আদালত।

রায় ঘোষণার ১১ দিন পর ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকালে রায়ের সার্টিফায়েড কপি বা অনুলিপি হাতে পান খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এর পর হাই কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ২০ ফেব্রুয়ারি তারা এ আবেদন করেন। ২২ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ এবং অর্থদণ্ড স্থগিত করে নথি তলব করেন হাই কোর্ট। এর পর ৭ মার্চ অপর আসামি মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামালের আপিলও শুনানির জন্য গ্রহণ করেন হাই কোর্ট। ১০ মে আরেক আসামি শরফুদ্দিনের আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন আদালত।

এ মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল করে জামিন আবেদনের পর খালেদা জিয়াকে ১২ মার্চ চার মাসের জামিন দেন হাই কোর্ট।

এর বিরুদ্ধে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের পর গত ১৬ মে তা বহাল রেখে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আপিল নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।