পানি কমতে শুরু করেছে  খোয়াইর, তবুও জনমনে আশংকা

 

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে সৃষ্ট বন্যার কারণে খোয়াই নদীর বাধ খুলে দেয়ায় শুক্রবার (১৮ মে) সারারাত আতঙ্কে ছিলো হবিগঞ্জ শহরবাসী। শনিবার (১৯ মে) সকাল থেকে পানি কমতে থাকায় জনমনে কিছুটা স্বস্তি আসে। তবে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে এখনও বন্যার প্রভাব থাকায় আবারও বাধ খুলে দিলে পানি বৃদ্ধি পেতে পারে। ফলে হবিগঞ্জ শহর আবারও বন্যা কবলিত হওয়ার আশংকায় রয়েছেন বাসিন্দারা।

শুক্রবার (১৮ মে) অনেকেই রাত জেগে পাহারা দিয়েছেন নদীর বাধ। শহরের কামড়াপুর এলাকার বাধে লিকেজ দেখা দিলে ওই এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে পানি উন্নয়ন বোর্ড শুক্রবার গভীর রাতে বালির বস্তা এবং জিও টেক্সটাইল দিয়ে লিকেজটি বন্ধ করে।

তবে শুক্রবার শহরবাসীকে আতঙ্কিত আর বিনিদ্র রজনী উপহার দিলেও শনিবার (১৯ মে) কমতে শুরু করে পানি।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী এমএল সৈকত জানান, শুক্রবার দিন থেকে রাত পর্যন্ত খোয়াই নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ১১.৫০ মিটার পর্যন্ত প্রবাহিত হয়। যা ছিল বিপদসীমার ২০০ সেন্টিমিটার বেশি। তবে শনিবার সকাল থেকেই কমতে থাকে পানি। শনিবার সন্ধ্যায় পানি ছিল ৯.৭ মিটার। যা বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার বেশি।

তিনি আরও জানান, যেহেতু ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে এখনও বন্যার প্রভাব রয়েছে সেক্ষেত্রে আবারও বাধ খুলে দিলে পানি বৃদ্ধি পেতে পারে।