প্রচ্ছদ > শীর্ষ সংবাদ > সিকৃবি ছাত্রলীগের নেতৃত্বের দৌড়ে আলোচনায় যারা

সিকৃবি ছাত্রলীগের নেতৃত্বের দৌড়ে আলোচনায় যারা

শীর্ষ সংবাদ সিলেট প্রতিক্ষণ

সময়ের ডাক : ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মেলনকে সামনে রেখে ঘোষণা করা হচ্ছে দেশের প্রতিটি শাখা ছাত্রলীগের কমিটি। সে অনুযায়ী যেকোনো সময় সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) শাখা ছাত্রলীগের কমিটির ঘোষণা আসতে পারে। কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগেই সিকৃবির কমিটি ঘোষিত হতে পারে বলে ছাত্রলীগের একটি বিশ্বস্থ জানা গেছে।সিকৃবি ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের সম্ভাবনায় নতুন কমিটিতে ঠাঁই পেতে তৎপর হয়ে উঠেছেন পদপ্রত্যাশী নেতারা। এমনকি শীর্ষ দুই পদ দখলে জোর তৎপরতা ও কেন্দ্রের সাথে লবিংও চলিয়ে যাচ্ছেন সিকৃবির অর্ধশতাধিক নেতা।ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি সূত্রে জানা গেছে, দ্রুততম সময়ের মধ্যেই সিকৃবি ছাত্রলীগ কমিটি ঘোষণা করা হবে। তবে সিকৃবি ছাত্রলীগের নেতারা জানিয়েছেন- কবে নাগাদ কমিটি গঠন করা হবে এ ব্যাপারে তারা অবগত নন।গত মার্চে সিকৃবি ছাত্রলীগের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতারা অংশ নেন। এ সম্মেলনের পর নতুন কমিটির জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের জীবনবৃত্তান্ত আহ্বান করা হয়। প্রায় দেড়শতাধিক পদপ্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে জীবনবৃত্তান্ত প্রদান করেন। এরমধ্যে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদের জন্যই অন্তত ৫০ জন নিজের জীবনবৃত্তান্ত প্রদান করেন।

এদিকে নতুন কমিটির আশায় এখন উৎসুক সিকৃবি ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। পদ প্রত্যাশী নেতাদের মধ্যে এগিয়ে আছেন যারা তারা হলেন- ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শিপলু রায়, এছাড়াও হাবিবুর রহমান রাজু, আলমগীর হোসেন, ময়জুল ইসলাম রাহাত, মো. তানভীর ইসলাম, আশিকুর রহমান (আশিক), শরীফ হোসাইন, শাহ মোয়জ্জেম, অনুপ চৌধুরী, খালিদ হাসান তারেক সহ আরো অনেকে।

এ ব্যাপারে সিকৃবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ঋত্বিক দেব বলেন, ‘আমরা চাই পরিচ্ছন্ন মেধাবী ছাত্র নেতাদের নিয়ে সিকৃবি ছাত্রলীগের কমিটি গঠিত হোক। সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন স্থানে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাওয়া গেলেও সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ পরিচ্ছন্ন রাজনীতির মাধ্যমে সুনাম কুড়িয়েছে। এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে চাই একজন মেধাবী ও আদর্শবান ছাত্রনেতা। আসা করছি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বিষয়টি অনুধাবন করবেন।’

সিকৃবি ছাত্রলীগের সভাপতি শামীম মোল্লা বলেন, ‘নতুন কমিটি গঠনের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নেতারা কোন প্রকার আলোচনা এখনো পর্যন্ত আমাদের সাথে করেননি। তবে শুনেছি কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের আগেই সিকৃবি ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হবে। গত মার্চে সংগ্রহ করা পদ প্রত্যাশীদের বায়োডাটাগুলো যাচাইবাছাই করা হচ্ছে বলে শুনেছি।’

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে শামীম মোল্লাকে সভাপতি ও ঋত্বিক দেব অপুকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত হয়েছিল সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (সিকৃবি) ছাত্রলীগের কমিটি। কেন্দ্র থেকে গঠন করে দেওয়া এ কমিটির মেয়াদ একবছর থাকলেও কমিটি গঠনের পর কেটে গেছে ছয় বছর। অর্ধযুগ পর আবার নতুন কমিটি আসা নিয়ে সিকৃবিতে যেন এক উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।