শিক্ষার্থী বৃত্তি পাচ্ছে ৪০ ভাগ : শিক্ষামন্ত্রী

সময়ের ডাক ডেস্ক:শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শতকরা ৪০ ভাগ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয় হচ্ছে। সকল শিক্ষার্থীর জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ মিলনায়তনে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ ২০১৮ এর জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমানে শতকরা ৯৮ ভাগ শিশু এখন স্কুলে যাচ্ছে। সারাদেশের মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের চিহ্নিত করা এবং তাদের উৎসাহিত করতে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা ২০১৩ সাল থেকে চালু করা হয়েছে। মেধাবীরা যাতে ঝরে না পড়ে সে জন্য এ উদ্যোগ সাহায্য করছে। মেধাবীরা যাতে ঝরে না পড়ে সেদিকে সরকার লক্ষ্য রাখছে।
তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য সৃজনশীল মেধাবী নতুন প্রজন্ম গড়ে তোলা, যারা দেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলবে। প্রতিটি কাজের উপযোগী দক্ষ লোক তৈরি করতে হবে। একই সাথে আমরা ভালো মানুষ তৈরি করতে চাই। দেশপ্রেমে উজ্জীবিত মানুষের প্রতি শ্রদ্ধাশীল পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে নতুন প্রজন্মকে গড়ে তুলতে চাই। জ্ঞান ও প্রযুক্তি শুধু আমদানি নয়, রফতনি করতে হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমদ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর মো. মাহাবুবুর রহমান এবং মাউশি অধিদফতরের পরিচালক ও সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতার সদস্য সচিব ড. মো.আব্দুল মালেক বক্তব্য রাখেন।
সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ ২০১৮ এর জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় ৮টি বিভাগ ও ঢাকা মহানগরী থেকে উত্তীর্ণ ১০৮ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছে। ওই ১০৮ জনের মধ্যে ৪টি বিষয়ে জাতীয় পর্যায়ে ১২ জন সেরা মেধাবী নির্বাচন করা হবে।