শ্রমিকের রক্তঘামে গড়ে উঠে তিলোত্তমা নগরী: মেয়র আরিফ

সময়ের ডাক:: সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, শ্রমিকদের রক্তঘামে গড়ে উঠে তিলোত্তমা নগরী। মানুষের স্বপ্নের নীড়টাও গড়েছেন এই শ্রমিকরাই। তাই শ্রমিকদের প্রতি কোনভাবেই অবহেলা নয়। তাদের উপযুক্ত মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। শ্রমজীবী মানুষের প্রতি সুন্দর মনোভাব পোষণ করে তাদের কাজের প্রতি সম্মান জানাতে হবে। তিনি শ্রমিক ভাই-বোনদের সুখে-দু.খে পাশে থাকার অভিপ্রায় ব্যক্ত করে বলেন, শ্রমিকদের চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়নে সিটি কর্পোরেশনে একটি এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ব্যবস্থা চালু করা হবে। সে সার্ভিসটি শুধুমাত্র শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ থাকবে। তাছাড়াও মেয়র শ্রমিকদের জন্য হেলথ কার্ড ইস্যুর ব্যাপারেও আশ্বাস প্রদান করেন।

তিনি মঙ্গলবার সিলেট জেলা গৃহ নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি. চট্ট- ২৪২৩) এর উদ্যোগে মহান মে দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এক কথা বলেন।

ইউনিয়নের সভাপতি শেখ তোফায়েল আহমদ সেপুলের সভাপতিত্বে ও প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহ আলম সরদারের উপস্থানপায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি ডাইরেক্টর কাজী শহীদুল ইসলাম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের উপ-মহাপরিদর্শক হিমন কুমার সাহা, সেভেন রিং সিমেন্টের ডেপুটি ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার মিজানুর রহমান, চায়না-বাংলা সিরামিক লি. মার্কেটিং ম্যানেজার মো. হেমায়েত হোসেন, এডভোকেট আবুল ফজল, দৈনিক শ্যামল সিলেটের বার্তা সম্পাদক আবুল মোহাম্মদ, কাউন্সিলর আব্দুর রকিব তুহিন, চেতনা যুব পরিষদের সভাপতি জুলকার নায়েন প্রমুখ।

এর আগে সকাল ৯টায় নগরীর শিবগঞ্জ থেকে সিলেট জেলা গৃহ নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালী উদ্বোধন করেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা মহিলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাহিদা আক্তার চৌধুরী, রোটারিয়ান হেনা বেগম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মুহিবুস সালাম রিজভী, নিরাপদ সড়ক চাই সিলেট জেলা শাখার সভাপতি বাবর লস্কর, সাধারণ সম্পাদক শাহ লোকমান আলী, শ্রমিক নেতা নিয়াজ খান। র‌্যালিটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আলোচনা সভায় যোগ দেয়।

আলোচনা সভায় বক্তারা শ্রমিক মৃত্যুর পর ২ লাখ টাকা সরকারি অনুদান বাড়িয়ে ৫ লাখ টাকা করার দাবি জানান। তাছাড়া সংগঠনের একটি স্থায়ী কার্যালয়ের জন্যও সিটি মেয়রের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

আলোচনা সভায় তারা শ্রমিক সংগঠনের কার্যক্রম গতিশীল করতে অবিলম্বে এক নির্বাচন আয়োজনের দাবি জানান।

অনুষ্ঠানগুলোতে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মো. আব্দুল বারেক হাওলাদার, মো. মাহবুব হোসেন স্বপন, মো. রুকন উদ্দিন, লিটন কুমার বিশ্বাস, জেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমদ সোহেল, দরকষাকষি সম্পাদক এমরান কাজী, ক্যাশিয়ার মো. আব্দুর রহিম, প্রচার সম্পাদক সিরাজ আহমদ, দপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান বয়াতী, সহ দপ্তর সম্পাদক মো. আব্দুল আলীম, থানা ও ওয়ার্ড শাখা উপ পরিষদের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মো. মোজাম্মেল হোসেন, মো. বেলাল আহমদ, মো. শাহাব উদ্দিন, মো. হাসমত আলী, মো. বেল্লাল আহমদ, মো. সিদ্দিক পারভেজ, মো. বসার মিয়া, মো. সামসু মিয়া, মিনারা বেগম, মোছা. জেসমিন বেগম, মো. সেলিম উদ্দিন, মো. শফিকুর রহমান প্রমুখ।